Feeds:
Posts
Comments

Archive for the ‘Computer Tips’ Category

যাঁদের একসঙ্গে অনেক কম্পিউটার বন্ধ করার প্রয়োজন হয়, তাঁরা সাধারণত একটি একটি করে কম্পিউটার বন্ধ করে থাকেন। এটা বেশ সময় সাপেক্ষ এবং ঝামেলার ব্যাপার। তবে ল্যান শার্টডাউন সফটওয়্যার থাকলে এক ক্লিকে একাধিক কম্পিউটার বন্ধ, রি-স্টার্ট এবং লগঅফ করা যায়। অফিসে অনেকগুলো কম্পিউটার নেটওয়ার্কে থাকলে বা কম্পিউটার ল্যাবের ক্ষেত্রে এই সফটওয়্যার বেশ কাজে দেবে। মাত্র ১ মেগাবাইটের ফ্রিওয়্যার এই সফটওয়্যার http://www.lantricks.com/lanshutdown থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ইনস্টল করার পরে কম্পিউটারগুলো যুক্ত করতে হবে। এর পরে যে যে কম্পিউটার বন্ধ করতে চান, সেগুলো নির্বাচন করে অপশন Shutdown বাটন নির্বাচন করে (Force Terminating Application নির্বাচিত রেখে) Shutdown! বাটনে ক্লিক করলেই হবে।

Advertisements

Read Full Post »

কম্পিউটারে কাজ করার সময় প্রায়ই অনেক ডায়লগ বক্স আসে এবং সেখানে Yes, Noসহ অনেক ধরনের অপশন থাকে। সেখানে মাউস পয়েন্টার নিয়ে কোনো একটি অপশন নির্বাচন করতে হয়। কিন্তু আমরা যদি মাউসের Snap To অপশন ব্যবহার করি, তাহলে ডায়লগ বক্স এলেই মাউসের পয়েন্টার স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেই ডায়লগ বক্সের যে বাটনে ক্লিক করার সম্ভাবনা থাকে, সেই বাটনে চলে যায়। মাউসের Snap To অপশন কার্যকর করার জন্য Control Panel-এ গিয়ে মাউস আইকনে দুই ক্লিক করতে হবে। মাউস প্রপাটিজ উইন্ডো এলে সেখান থেকে Pointer Options-এ ক্লিক করে Automatically move pointer to the default button in a dialog box-এ টিক চিহ্ন দিয়ে okতে ক্লিক করুন।

Read Full Post »

গুগল ক্যালেন্ডার এখন বেশ জনপ্রিয়। গুগল ক্যালেন্ডারের বেশ কিছু ওয়েব টুলস থাকলেও ডেক্সটপে ব্যবহারের মত বেশী কিছু এ্যাপলিকেশন নেই। তবে Azotix Active Organizer বেশ ভালো এবং ব্যবহার বান্ধব। সফটওয়্যারটি দ্বারা অফলাইনেও গুগল ক্যালেন্ডার ব্যবহার করা যায়।
মাত্র ৬৭৭ কিলোবাইটের ফ্রি এই সফটওয়্যারটা www.azotix.com থেকে ডাউনলোড করে নিন। এবার ইনস্টল করে গুগল একাউন্ট (গুগল এ্যাপসের একাউন্ট গুলোও ব্যবহার করা যাবে) লগইন করুন। গুগল ক্যালেন্ডার প্রায় সকল সুবিধা ব্যবহার করা যাবে। অফলাইনে ইভেন্ট দেখা যাবে এবং নতুন ইভেন্ট তৈরী করা যাবে। অনলাইনে সংযুক্ত হলে নির্দিষ্ট সময় পরপর এককালবর্তী করে নেবে।

Read Full Post »

(১) প্রথমে স্টাট বাটনে ক্নিক করে রানে যান এবং টাইপ করুন regedit তারপরে ok তে ক্লিক করুন রেজিস্টি এডিটর চালু হবে।
(২) তারপরে খুজুন HKEY_LOCAL_MACHINE
(৩) এরপর যান software তারপরে microsoft
(৪) এরপরে windows এ যান
(৫) এরপরে যান current version এ যান
(৬) এরপর এখান হতে explorer এ যান
(৭) তারপরে remote computer এ যান
(৮) এরপরে যান namespace key তে
(৯) এবার দেখুন এই namespace key এর মধ্যে দুইটি ভ্যালু আছে
প্রথমটি “{2227A280-3AEA-1069-A2DE-08002B30309D}”যা remote computer এর সাথে প্রিন্টার শেয়ারিং এর জন্য ব্যবহৃত হয়।
২য় টি “{D6277990-4C6A-11cf-8D87-00AA0060F5BF}”এই কী বলে যে শিডিউল রিমোট টাস্ক।আপনি এই ২য় ভ্যালুটি ডিলেট করুন।
দেখবেন ইন্টারনেটের ব্রাউজিং স্পিড আগের চেয়ে বেড়েছে। আপনার যদি প্রিন্টার শেয়ারিং করার প্রয়োজন না হয় তাহলে প্রথম ভ্যালুটি ডিলেট করে দিন তাহলে আরও স্পিড বাড়বে। আর ভ্যালু দুইটি ডিলেট করার আগে export করে নিন। যখন প্রয়োজন পড়বে তখন আবার import
করে নিবেন রেজিস্ট্রিতে। এভাবে ইচ্ছে করলে আপনি আপনার নেটের ব্রাউজিং স্পিড বাড়িয়ে নিতেন পারেন।

Read Full Post »

বর্তমানে ভাইরাস ছড়ানোর অন্যতম মাধ্যম হল পেন ড্রাইভ। অনেক সময় দেখা যায়, আপনার অনুমতি ছাড়াই কেউ হয়ত আপনার পিসিতে পেন ড্রাইভ লাগিয়েছে এবং এর ফলে আপনার পিসি ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে গেছে। তাই অনাক্ষাংকিত কেউ যাতে আপনার পিসিতে পেন ড্রাইভ ব্যবহার করতে না পারে সে জন্য আপনি পিসিতে একটা ছোট কাজ করতে পারেন। এর ফলে আপনার পিসিতে পেন ড্রাইভ লাগালে ও তা শো করবে না। এজন্য যা করতে হবে:
১. প্রথমে Start এ গিয়ে Run এ যান এবং regedit লিখে এন্টার দিন।
২. HKEY_LOCAL_MACHINE → System → Current Control Set → Services → usbstor এ যান
৩. Start ওপেন করে ভ্যালু ৩ থাকলে ৪ করে দিন।
আপনার পেন ড্রাইভ ব্যবহারের প্রয়োজন হলে ভ্যালুটাকে আবার ৩ করে দিলেই হবে।

Read Full Post »

আমি আমার আগের লেখাতে এক ক্লিকে hibernate করার পদ্ধতির কথা বলেছিলাম । এখন আমি রিস্টার্ট করার পদ্ধতি দিলামঃ

ডেস্কটপে রাইট ক্লিক করুন এরপর

NEW>SHORTCURT

এরপর বক্সে নিচের কমান্ড লিখুন

SHUTDOWN -r -t 30

এভাবে শেষ করুন।

এখনে ৩০ বলতে বুঝানো হয়েছে যে রিস্টার্ট ৩০ সেকেন্ড পরে হবে। এটি আপনি বদলে ফেলতে পারেন বা কমাতে পারেন।

Read Full Post »

উইন্ডোজের অনেক সমস্যার মধ্যে একটি হলো, ডাবল ক্লিক এ ড্রাইভ না খুলা। যখন আপনি ড্রাইভ এ ডাবল ক্লিক করেন, তখন এটি না খুলে একটি এক্সপ্লোরার ওপেন হয়। এটা সাধারনত autorun.inf ভাইরাস এর কারনে হয়ে থাকে। তবে এটি নিয়ে চিন্তার তেমন কোন কারন নেই। এন্টিভাইরাস ছাড়াই এটা খুবই সহজে সমাধান সম্ভব।

এর জন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসরন করুন;

আপনার C: ড্রাইভ টিকে পরিস্কার করার জন্য;

১। স্টার্ট > রান এ গিয়ে, টাইপ করুন, cmd এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

২। টাইপ করুন, cd\ এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

৩। টাইপ করুন, attrib –r –h –s autorun.inf এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

৪। টাইপ করুন, del autorun.inf এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

এবার আপনার D: ড্রাইভ টিকে পরিস্কার করার জন্য;

১। স্টার্ট > রান এ গিয়ে, টাইপ করুন, cmd এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

২। টাইপ করুন, cd\ এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

৩। টাইপ করুন, D: এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

৪। টাইপ করুন, attrib –r –h –s autorun.inf এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

৫। টাইপ করুন, del autorun.inf এবং Enter বাটন এ প্রেস করুন।

আপনার প্রতি টি ড্রাইভ কে পরিস্কার করার জন্য উপরের ধাপ গুলো কে পর্যায় ক্রমে অনুসরন করতে হবে। আপনার কম্পিউটারে  যদি ৪ টি ড্রাইভ থাকে, আপনাকে তবে ৪ বার ধাপ গুলো অনুসরন করে আপনার ৪ টি ড্রাইভ কে পরিস্কার করে নিতে হবে। আপনার কাজ কিন্তু এখনো শেষ হয়নি, আপনার সব ড্রাইভ এ উপরে বর্নিত ধাপ অনুসারে পরিস্কার করার পরে আপনার কম্পিউটার টিকে একবার রি-স্টার্ট করে দেখুন, আপনার সমস্য সমাধান হয়ে গেছে।

Read Full Post »

Older Posts »